প্রাইমারি ভাইভা অভিজ্ঞতা

প্রার্থীর নামঃঅনিচ্ছুক
ডিপার্টমেন্ট : বিশ্ব ধর্ম ও সংস্কৃতি,ঢাবি।
সময়:১.৪০ এর দিকে
তারিখ: ৩/৬/২২
জেলা: কক্সবাজার
প্রথমে রুমে প্রবেশ করার পর একজন হাতের লেখা চেক করলেন।পাশে বোর্ড ছিলো তিনজনের।সালাম দিয়ে বোর্ডে গেলাম,শুরুতেই বললেন গান কবিতা পারি কি,না।
আমি:জ্বী স্যার, অবশ্যই। আমি স্কুলে গান শিখতাম।এগুলা নিয়ে কিছুক্ষণ কথা বললেন।গান শুনলেন না। বললেন যেহেতু শিখছেন আর গাইতে হবে না।
স্যার:স্কুল কলেজ কোনটা ছিলো?
আমিঃ যশোর বলাতে বললেন শ্বশুরবাড়ি কক্সবাজার তাহলে।
স্যার:চার নেতার নাম জানেন?
আমি: জ্বী স্যার,সৈয়দ নজরুল ইসলাম,তাজউদ্দিন আহমেদ,এম মনসুর আলী,কামারুজ্জাম বলার আগে অন্য প্রশ্নে গেলেন।
স্যার:বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি কে?
আমি:জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
স্যার:উনার লেখা বই পড়েছেন?
আমি:অসমাপ্ত আত্মজীবনী, কারাগারের রোজনামচা,আমার দেখা নয়া চীন।এগুলা বলার সময় স্যার বার বার বলছিলেন পড়েছেন নাকি নাম জানেন শুধু।
আমি:স্যার আমি ঢাবি সাহিত্য সংসদের সদস্য ছিলাম।
স্যার: প্রশ্ন এদিকে নিয়ে গেলেন।বললেন তাহলে বলেন কক্সবাজারের একজন কবি বর্তমানে ভাল পদে আছেন কে?
আমি:কবি নুরুল হুদা,কক্সবাজার। বাংলা একাডেমির সভাপতি।
স্যার:সভাপতি?
আমি:না স্যার সরি,মহাপরিচালক।
স্যার:আপনার উত্তর নিব না।অন্য কেউ ভুল করলে নিতাম।
আমি:😒
স্যার:আমার ডিপার্টমেন্ট এর প্রশংসা করলেন অনেক।ব্রডলি পড়ালেখা এসব।তাছাড়া অনেক প্রোগ্রাম এ্যারেন্জ করে।
আমি:জ্বী স্যার,প্রতিবছর একসপ্তাহব্যাপী ইন্টার রিলিজিয়াস হারমোনি সপ্তাহ আরও অনেক কিছু বললাম।
স্যার:ডিপার্টমেন্ট এর বর্তমান চেয়ারম্যান কে?
আমি: আগের চেয়ারম্যান এর নাম বলেছি হুট করে।
আরেকজন স্যার :IER কি?
আমি:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা ইনস্টিটিউট।
স্যার:ফুল মিনিং জানতে চেয়েছিলেন।
আমি:ইন্সটিটিউট অব ইডুকেশন এন্ড রিসার্চ।
স্যার:ঠিক আছে আপনি আসতে পারেন।আপনার ভাইভা ভাল হয়েছে।
আমি:সালাম দিয়ে,স্যার আমার জন্য দোয়া করবেন।
স্যার:সবার জন্যই দোয়া করছি আমরা।
বোর্ড খুবই আন্তরিক ছিলেন।এটা আমার প্রথম ভাইভা ছিলো।

প্রার্থীর নাম : লুৎফর রহমান
তারিখঃ ০৩/০৭/২০২২
জেলাঃ মৌলভীবাজার
বিষয়ঃ ব্যবস্থাপনা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।
শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ বিবিএ, এমবিএ।
নামঃ মোঃ লুৎফর রহমান।
সময়ঃ ৮/১০ মিনিট ( আমি সকালের শেষ প্রার্থী ছিলাম তাই কয়েক মিনিট বেশি ছিলাম বোর্ডে)।
সালাম দিয়ে রুমে প্রবেশ করলাম। বসতে বলায় ধন্যবাদ দিয়ে বসলাম।
বোর্ডঃ আপনার নাম কি?
আমিঃ মোঃ লুৎফুর রহমান।
বোর্ডঃ আপনি কোন বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করেছেন?
আমিঃ ব্যবস্থাপনা।
বোর্ডঃ কোথায় পড়ালেখা করেছেন।
আমিঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।
বোর্ডঃ বাপরে এতদূরের আপনি? তারপর ভার্সিটি এবং শাটল ট্রেন নিয়ে কিছু স্মৃতিচারণ করলেন এডিসি স্যার সম্ভবত স্যার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিস্ট্রি ডিপার্ট্মেন্টের ছিলেন।
আমিঃ জ্বি স্যার, জ্বি স্যার করলাম।
বোর্ডঃ ডঃ লুৎফর রহমানকে চিনেন?
আমিঃ জ্বি স্যার, তিনি একজন ডাক্তার, সাহিত্যিক ও সম্পাদক ছিলেন।
বোর্ডঃ তাঁর কয়েকটি রচনা বলতে পারবেন?
আমিঃ উন্নত জীবন, মহৎ জীবন, মানব জীবন, উচ্চ জীবন, যুব জীবন।
বোর্ডঃ উনার লেখা পড়েছেন?
আমিঃ না স্যার, এখনও পড়া হয়নি।
বোর্ডঃ তিনি কিসের ডাক্তার ছিলেন?
আমিঃ তিনি হোমিওপ্যাথির ডাক্তার ছিলেন।
বোর্ডঃ আচ্ছা ট্রান্সলেট করেন ‘আমি বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে শাটল ট্রেন অনেক উপভোগ করেছি।
আমিঃ ‘I have enjoyed the shuttle train a lot in my university life.’
বোর্ডঃ এখন একটা কঠিন ট্রান্সলেশন তোমাকে ধরবো বলতো দেখি ‘রেললাইনের দুটি লাইন সমান্তরালভাবে যায়।’ এটার ট্রান্সলেশন কি হবে?
আমিঃ Parallel শব্দটি মাথায় আসছিলো না পরে এডিসি স্যার হেল্প করলেন ‘The two lines of the railway run parallel.’
বোর্ডঃ Parallel শব্দটি লিখে দেখান।
আমিঃ লিখলাম (স্যার বললেন হয়েছে)।
বোর্ডঃ রেললাইন কখন একসাথে মিলিত হয়?
আমিঃ স্যার মিলিত হয় না।
বোর্ডঃ গাণিতিকভাবে বলেন।
আমিঃ স্যার ক্রসিংয়ের সময় কৌণিকভাবে মিলিত হয়।
বোর্ডঃ এটা হবে রেললাইন অসীমে মিলিত হয় তারমানে মিলিত হয় না কখনও।
বোর্ডঃ আপনাকে অংক ধরেছিলাম?
আমিঃ না স্যার ধরেননি।
বোর্ডঃ আপনাদের ভার্সিটি থেকে শহরের দূরত্ব কত?
আমিঃ স্যার ২২ কিলোমিটার।
বোর্ডঃ বলেন তো ২২ কিলোমিটারের ৭০% কত?
আমিঃ স্যার ১৫.৪ কিলোমিটার।
বোর্ডঃ আর ৩০% কত?
আমিঃ স্যার ৬.৬ কিলোমিটার।
বোর্ডঃ দুইজন স্যার একসাথে বললেন গুড গুড ভেরি গুড। আপনার ভাইভা কঠিন হয়েছে, ভালো হয়েছে। ধন্যবাদ আপনাকে আপনি এখন আসুন।
Allah is the best planner.

প্রার্থীর নামঃ(নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)
তারিখঃ ০২ জুলাই,২০২২
জেলাঃ রাজশাহী
বিষয়ঃ গনিত
বোর্ডে মোট সদস্য-৩ জন, এডিসি স্যার+ ২ জন(চিনি না)
অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করার পর এডিসি ম্যাম বসার কথা বললে ধন্যবাদ দিয়ে আসন গ্রহণ করলাম।
বোর্ডঃ আপনার কাগজপত্র যা যা আনছেন দেন।
বোর্ডঃ নাম পড়েই,এই নামগুলোই আমার পছন্দ।
বোর্ডঃকোথায় & কোন সাব্জেক্ট এ পড়েছেন।
উত্তরঃম্যাথমেটিকস,পাবিপ্রবি।
এডিসি ম্যামঃআপনি তো এ জব করবেন না।
উত্তরঃআমি চুপ।
বোর্ডঃ কোণ সম্পর্কিত ৪ টা প্রশ্ন।
উত্তরঃ দিলাম।
বোর্ডঃ পিথাগোরাসের উপপাদ্য লিখুন।
উত্তরঃলিখলাম।
বোর্ডঃ এর বাস্তব জীবনের প্রয়োগ দেখান।
উত্তরঃসরি স্যার।
এডিসি ম্যামঃম্যাথের স্টুডেন্ট, ম্যাথ ধরে লাভ নেই।
এর পর সব প্রশ্ন এডিসি ম্যাম করল।
১.আলেকজান্দ্রিয়া বন্দর কোথায় অবস্থিত।
২.পিরামিডের দেশ কোনটি।
৩.পিরামিডের ভিতর কি থাকে(এই প্রশ্ন করে সবাই হেঁসে দিছে)
৪.নতুন একটা বন্দরের নাম বলেছিল,আমি জীবনেও এই নাম শুনি নাই)
৫.বাফার রাস্ট্র কি,উদাহরণসহ বলুন।
৬.বেলজিয়াম বাফার রাষ্ট্র হলে ২ দিকের রাস্ট্র কি কি ছিল।
আমিঃএকটু দেরি করাই উনি বললেন ফ্রান্স, সাথে সাথেই আমি বললাম আরেকটি জার্মানি।
এডিসিঃ আপনি পড়াশোনার মধ্যেই আছেন বুঝা যাচ্ছে।
৭.সুরিনাম কোন মহাদেশে অবস্থিত।
৮.সুরিনাম এর মুদ্রার নাম।
এডিসি ম্যামঃআপনাকে সর্বশেষ একটা সৃজনশীল প্রশ্ন ধরি(সমাজের বিভিন্ন অসংগতি দেখতে পাচ্ছি,এগুলোর মুল কারণ কি??)
এডিসি ম্যাম অন্য স্যারদের বললেন, গান শুনবেন??
তারা বললেন ছেড়ে দিন।
সালাম দিয়ে চলে আসলাম।

প্রার্থীর নাম : মোঃফেরদৌস হাসান
তারিখঃ২-০৭-২০২২
ডিউরেশনঃ৫ মিনিট( প্রায়)
উপজেলাঃফুলবাড়ী(কুড়িগ্রাম)
সাবজেক্টঃইংরেজি
ভাইভা বোর্ডে তিনজন এতটাই আন্তরিক যে কোনো প্রকার ভয় কাজ করছিলোনা,পুরো সময় হেসেই কথা বলেছেন,আমিও সেই তালে সুযোগ নিয়েছি।মনে হচ্ছিল পরিবারের মানুষের সাথে কথা বলতেছি।
আমিঃআসতে পারি স্যার?
এডিসি স্যারঃজ্বি আসুন।
আমিঃ আসসালামুয়ালাইকুম,
স্যারঃসালাম নিয়ে বললেন কাগজগুলো দিন, বসুন।আপনাকে বেশ স্মার্ট লাগছে।।
আমিঃধন্যবাদ স্যার।
২য় স্যারঃফেরদৌস হাসান,ইংরেজি অনার্স,ভেরি গুড।
আমিঃআবার ধন্যবাদ দিলাম।
৩য় স্যারঃ সিগনেচার করুন,এই শব্দ দুটি লিখুন
আমিঃলিখলাম।
এডিসি স্যারঃ আচ্ছা বলুনতো ইংরেজি সাহিত্যের যুগ গুলো
আমিঃসালসহ বলা শুরু করলাম তবে থামিয়ে দিয়ে বললেন,শুধু নাম বলো।বললাম
স্যারঃবাহ ভেরি গুড
এডিসি স্যারঃ একটি উক্তি বলেছেন। (উক্তিটি এই মূহুর্তে মনে পড়ছেনা আমার)
আমিঃস্যার উক্তিটি জন কিটসের।
স্যারঃতাহলে বলুনতো এনার আর একটি জনপ্রিয় উক্তি।
আমিঃবললাম।
স্যারঃভেরি গুড।
আমিঃধন্যবাদ স্যার
এডিসি স্যারঃ ইংরেজি সাহিত্যের রাজাদের রাজা বলা হয় কাকে!! ( ইংরেজিতে বলেছিলেন)
আমিঃপ্রথমে ঠিক শুনতে পারিনি,পরে উনি ভালভাবে বুঝিয়ে দিলেন,পাশের আর একজন স্যার আরো ক্লু দিলেন,দেন উত্তর দিলাম উইলিয়াম শেক্সপিয়ার।
স্যারঃ এখন ঠিক আছে,খুব ভালো
২য় স্যারঃ এই অংশটুকু পড়ুন
আমিঃখুব সুন্দরভাবে পড়লাম,স্পষ্ট উচ্চারণ সহ।
স্যারঃ কোনো সমস্যা নেই।খুব ভালো হয়েছে।ইংরেজিতে পড়েছেন,খুব ভালো।
আমিঃধন্যবাদ স্যার।
এডিসি স্যারঃ আচ্ছা,আপনি আসুন
আমিঃ ধন্যবাদ দিয়ে সালাম দিয়ে বের হয়ে আসলাম।
এতটা আন্তরিক হলে ভাইভায় যেকেউই মাথা ঠান্ডা রেখে উত্তর দিতে পারবে। রিযিকের মালিক মহান আল্লাহ,আল্লাহ চাইলে আমাদের জন্য বিষয়গুলো সহজ হবে,আল্লাহ উত্তম পরিকল্পনাকারী। আল্লাহ আমাদের সহায় হোক।

প্রাইমারি ভাইভা অভিজ্ঞতা
জেলা:……
৩ জুলাই, ২০২২
আমি:অনুমিত নিয়ে ভেতরে প্রবেশ করলাম এবং সালাম দিলাম।
বোর্ড: বসতে বলল।
আমি: বসলাম ও ধন্যবাদ দিলাম।
বোর্ড: প্রশ্ন করলো।
আমি: উত্তর দিলাম।
বোর্ড: প্রশ্ন করল।
আমি: বললাম।
বোর্ড: জিজ্ঞাস করল।
আমি: বললাম।
বোর্ড: আবারও জানতে চাইলো।
আমি: বললাম।…………
প্রায় ৫/৬ মিনিটে আরো অনেক কিছুই জিজ্ঞাস করছে। আমিও উত্তর দিছি।
বুঝতে পারলাম না ভাইবা কেমন হলো। সবাই বিশ্লেষন করে মতামত জানাবেন।
সরি, আমাকে কেউ গালি দিবেন না।
যারা এভাবে পোস্ট করে পারলে একটু শুধরে দিন। যারা নতুন ভাইবা দিবে তারা ফেসবুকে ভালো একটা পোস্ট খোঁজে কিছু শেখার জন্য। কিন্তু সবাই এদের নিয়ে মজা করে।

প্রার্থীর নাম : মাহমুদুল হাসান রিয়াদ
২৯/০৬/২২ইং
সময়ঃ১২.১০ সকালে
লক্ষ্মীপুর সদর
বিভাগঃইংরেজী
আমিঃ সালাম দিয়ে, আসতে পারি স্যার।
ডিপিও স্যারঃ আসেন
ডিপিও স্যারঃ নাম কি, তার পরে ফরমে নাম,রোল,সাক্ষর,বাংলাদেশ সম্পর্কে একটা বাংলা একটা ইংরেজী বাক্য লিখে দেখালাম।
ডিসি স্যারঃ কোন বিষয়ে অনার্স, কোন কলেজ থেকে।
আমিঃ ইংলিশে, লক্ষ্মীপুর সরকারী কলেজ।
ডিসি স্যারঃ I want to be priamry teacher, Why?
আমিঃ Education is compared to light.
I want to spead this light to students.
The creativity, happiness, joy, fun of children influence me to enjoy primary teaching. That is why i want to be a primary teacher.
স্যারঃ এ অংক দুটি করুন
১) ০.১*০.১*০.১=০.০০১
২)ভগ্নাংশ ২.১/০.১২ করিনি।
ডিসি স্যারঃ আয় বুঝে ব্যয় কর এর ইংরেজি অনুবাদ, Cut your coat according to you cloth বললাম। তারপর বললেন, Coat বানান লিখ তারপর Board বানান লিখতে বলেন।
ডিপিও স্যারঃ আপনি আসুন।
আমিঃ পেছনে তাকিয়ে সালাম দিয়ে বাহির হলাম।
রিজিকের মালিক আল্লাহ দোয়া করবেন।

প্রার্থীর নাম : সাবিনা ইয়াসমিন
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ভাইভা অভিজ্ঞতা
তারিখঃ ৩০/০৬/২০২২
জেলাঃ রংপুর।
উপজেলাঃ গংগাচড়া।
সময়ঃ ৫/৭ মিনিট
আমিঃ অনুমতি নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে সালাম দিলাম।
DPEO স্যারঃ সার্টিফিকেট গুলো দিতে বললেন এবং বসতে বললেন।
ADC স্যারঃ দুটি sentence লিখতে বললেন। এবং জিজ্ঞাসা করলেন Husband কি করে?
আমিঃ লিখলাম। স্যারের দিকে তাকিয়ে বললাম Unmarried🥺
( তখন বোর্ডের সবাই হাসলো। side থেকে ম্যাম বললেন স্যার ফাজলামো করে জিজ্ঞাসা করেছে)
ADC স্যারঃ বাবা কি করে। কয় ভাইবোন?
আমিঃ Business. দুই ভাইবোন।
ADC স্যারঃ কোথায় পড়াশোনা করেছো? কোন Subject?
আমিঃ বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়,রংপুর।
অর্থনীতি।
ADC স্যারঃ DC sir এর দিকে তাকিয়ে বললেন আজকে স্যার student বেশি। ( DC sir Economics থেকে study করেছে)
DC স্যারঃ Demand কাকে বলে?
আমিঃ একটি নির্দিষ্ট সময়ে একজন ক্রেতা একটি পণ্যের যে পরিমাণ ক্রয় করার ইচ্ছা পোষণ করে তাকে Demand বলে।
DC স্যারঃ Demand এর Condition গুলো বলো?
আমিঃ ক্রেতার আয়,রুচি,সময়,পণ্যের উপযোগ ইত্যাদি।
ADC স্যারঃ একটা গান বলো
আমিঃ ৩/৪ লাইন বলার পর DPEO স্যার কাগজগুলো দিয়ে বললেন যাও।
আমিঃ সালাম দিয়ে চলে আসলাম।

প্রার্থীর নাম : মাসুদ রানা
আমার ভাইভা তারিখ ছিল 21.06.2022 চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর।
আমি : সালাম দিয়ে অনুমতি নিয়ে ভিতরে প্রবেশ করলাম।
বোর্ড: বসতে বললেন।
আমি : ধন্যবাদ দিয়ে বসলাম।
বোর্ড: স্বাক্ষর করতে দিয়ে নাম জিজ্ঞেস করলেন।
বোর্ড: আপনার নাম কি?
আমি : নাম বললাম।
বোর্ড: আপনার সাবজেক্ট কি?
আমি : ইসলামিক স্টাডিজ।
বোর্ড: ইসলামিক স্টাডিজ প্রাইমারিতে কি কাজে লাগবে?
আমি : প্রাইমারিতে ইসলাম শিক্ষা সাবজেক্ট আছে। তাছাড়া নীতি নৈতিকতা ও মুল‍্যবোধ অর্জনে কাজে লাগবে।
বোর্ড: কোথা থেকে পড়েছেন?
আমি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়।
বোর্ড: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে?
আমি : ৬ জুলাই,১৯৫৩
বোর্ড: শামসুজ্জোহা কত তারিখে মারা গেছে?
আমি : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ১৯৬৯
বোর্ড: শামসুজ্জোহা কে ছিলেন?
আমি : বাংলাদেশের প্রথম শহীদ বুদ্ধিজীবী। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের শিক্ষক এবং প্রক্টর ছিলেন।
বোর্ড: তিনি কিসের জন্য মারা গিয়েছিলেন?
আমি : গণ-অভ‍্যুত্থান আন্দোলনে।
বোর্ড: আপনি হলে ছিলেন?
আমি : জ্বী স‍্যার
বোর্ড: কোন হল?
আমি : সৈয়দ আমীর আলী
বোর্ড: সৈয়দ আমীর আলী কে ছিলেন?
আমি : শিক্ষাবিদ ও সমাজ সংস্কারক।
বোর্ড: বাংলাদেশের শিক্ষা অবদানে তার অবদান কী ছিল?
আমি : অনেক অবদান ছিল স‍্যার বলে কি কি যেন আরো বলেছিলাম।
বোর্ড: এই সরকারের কোন কাজটা আপনার ভাল লাগে?
আমি : সরকারের উন্নয়নমূলক মেগা প্রজেক্টগুলো বললাম এবং করোনা মোকাবেলার সাফল্য বললাম।
বোর্ড: করোনা ভাইরাস মোকাবেলা সাফল্যের জন্য প্রধানমন্ত্রী কোন পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়েছে?
আমি : Vaccine hero and Lady of Dhaka.
বোর্ড: রাজনীতি করেন?
আমি : না স‍্যার।
এই প্রশ্নের উত্তর বোর্ড কি আশা করেছিল জানিনা কিন্তু এই প্রশ্ন ডিসি স‍্যার এবং অন্য এক স‍্যার দুজনই জিজ্ঞাসা করেছিল।
মনে মনে ভাবলাম ছাত্রলীগ বা আওয়ামীলীগ দলের সাথে সম্পৃক্ত থাকার কথা না বলেই ভুল করলাম নাকি!😛😛😁😁
বোর্ড: Ok আসেন।
আমি : উঠে সালাম দিয়ে বের হয়ে চলে আসলাম।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ ভাইভা
জেলাঃ লালমনিরহাট
বিষয়ঃ পদার্থ বিজ্ঞান
Robert Bruce- May I come in Sir?
Examiner- Yes you may
ঢুকে সালাম দিলাম।
ডিসি স্যার আমাকে বসতে বললেন।
ডিসি স্যারঃ নাম কি? কোন বিষয়ে পড়েছেন?
আমি- নাম ও বিষয় বললাম।
স্যার- ইংরেজী থেকে বাংলাসহ রিডিং পড়তে দিলেন।ক্লাস ফাইভের Aila cyclone topic
তারপর সাবজেক্টের প্রশ্ন শুরু করলেন।
১। কোয়ান্টাম ফিজিকস ক?
২। তড়িত চুম্বক তত্ত্ব কি?
৩। নিউটনের তৃতীয় সুত্র বলেন
৪।সিএফসি কি?
৫। আলোক তড়িত ক্রিয়া কি?
৬।চুম্বক তড়িৎ ক্রিয়া কিভাবে কাজ করে?
৭।ওজন স্তরের অবস্থান কোথায়?
স্যার বললেন এবার ইতিহাস থেকে কিছু প্রশ্ন করা যাক। এই বলে ক্লাস ফাইভের সমাজ বইটি হাতে নিলেন।এরপর বললেন
১। স্বাধীনতার ঘোষক কে?
২।স্বাধীন বাংলার জন্ম কত সালে হয়?
৩। নতুন বাংলাদেশের ঘোষণা কখন দেয়া হয়?
উত্তর করতে পারিনি। তখন ডিসি স্যার বললেন বিকেল ৫ টায়।
শেখ মুজিবুর রহমান এর মাতা ও পিতার নাম জিজ্ঞাসা করলেন। এছাড়া মুজিব নগর সরকারের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য কারা ছিলেন তা জিজ্ঞাসা করেছিল।
আমি- উত্তর করি।
স্যার- বাংলাদেশের কয়েকটি উপজাতির নাম বলুন।।
আমি সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত আছি কিনা জানতে চেয়েছিলেন।
আমি- কাজী নজরুলের ভোর হলো কবিতাটি আবৃত্তি করার মাধ্যমে ভাইভা শেষ করি।
বিদ্রঃ ভাইভা বোর্ড অনেক ফ্রেন্ড ছিল। তবে ফরমাল পোশাকের দিকটা খেয়াল রাখবেন। দাড়ি/ সুন্নতি পোশাকে কোন সমস্যা হতে দেখিনি।
আল্লাহর রহমতে ভাইভা ভাল ছিল। বের হওয়ার শুনছিলাম ডিসি স্যার বলছিল একে দিয়েই হবে। বাকিটা আল্লাহর হাতে। আমার জন্য দোয়া করবেন।
আপনাদের একজন সহযোদ্ধাঃ হার না মানা Robert Bruce

মমতাজ আক্তার মেরিনা
জেলা-লক্ষ্মীপুর
বিষয়-রাষ্ট্রবিজ্ঞান
২০-০৬-২০২২
বোর্ড সদস্য ছিলেন চার জন
ডিসি স্যার,ডিপিইও স্যার,একজন স্যার এবং ম্যাডাম ছিলেন যাদের চিনতে পারি নাই।
লাঞ্চের পর প্রথমে আমি ছিলাম তাই মেন্টালি প্রিপিয়াড ছিলাম আমাকে অনেক ক্ষণ রাখবে।
১০-১২ মিনিটের ভাইভা
আমার নাম ধরে ডাক দিয়েছিলেন।
ভিতরে ঢুকে সালাম দিলাম।
ডিপিইও স্যার বসতে বললেন।
বসার পর একটা কাগজ দিলেন,রোল,নাম,বাংলাদেশ সম্পর্কে বাক্য গুলো লিখতে বলেছেন।লিখেছিলাম স্যার বললেন ঠিক আছে।
ম্যাডাম-আপনি কোথায় থেকে কি নিয়ে পড়াশোনা করেছেন???
আমি-আমি ইডেন মহিলা কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করেছি।
ম্যাডাম-আচ্ছা,রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করেছেন?
আমি-জি
ম্যাডাম-রাষ্ট্রবিজ্ঞান পড়তে কেমন লাগে??
আমি-ভালো।
ম্যাডাম-আচ্ছা,বলেন তো রাষ্ট্রবিজ্ঞান এর জনক কে?
আমি- এরিস্টটল
ম্যাডাম-কেন তাকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এর জনক বলা হয়?
আমি-কি বলবো বুঝতে পারছিলাম না…
পরে বললাম…রাষ্ট্রবিজ্ঞান সম্পর্কে তিনি বিভিন্ন মতবাদ দিয়েছেন,লাইসিয়াম নামে একটি প্রতিষ্ঠান তিনি প্রতিষ্ঠা করেন..যেখানে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে পড়ানো হত।এবং তিনি দ্যা পলিটিক্স নামে রাষ্ট্রবিজ্ঞান সম্পর্কে লিখেছেন।প্রথম তার থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এর স্বচ্ছ ধারণা পাওয়া যায় তাই তাকে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এর জনক বলা হয়।
ম্যাডাম-দ্যা পলিটিক্স এরিস্টটল লিখেছেন???
আমি-জি
ম্যাডাম-আপনি পড়েছেন???
আমি-জি না।
এবার ডিসি স্যার প্রশ্ন করলেন
ডিসি স্যার-এরিস্টটল এর শ্রেণী বিন্যাস সম্পর্কে বলুন।
আমি-মনে পড়ছিল না সরি বলে চুপ ছিলাম।
ডিসি স্যার-রাষ্টের একনায়কতন্ত্র সম্পর্কে তিনি ধারণা দিয়েছেন না?
আমি-জি স্যার
ডিসি স্যার-সংবিধান কত প্রকার?
আমি-দুই প্রকার
ডিসি স্যার-কি কি?
আমি-লিখিত ও অলিখিত
ডিসি স্যার-আর?
আমি-সুপরিবর্তনিয় ও দুঃষ্পরিবর্তনিয়
ডিসি স্যার-বাংলাদেশের এর সংবিধান কেমন?
আমি-লিখিত এবং দুঃষ্পরিবর্তনিয়
ডিসি স্যার-বাংলাদেশের আইন সভা কয় কক্ষ বিশিষ্ট?
আমি-এক কক্ষ বিশিষ্ট।
ডিসি স্যার-কি নাম?
আমি-জাতীয় সংসদ
ডিসি স্যার-দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট আইন সভা আছে এমন কয়েকটি দেশের নাম বলুন।
আমি-ভারত,বলার সাথে সাথে জিজ্ঞাসা করলেন কি নাম?বললাম..লোক সভা ও বিধানসভা
মাথায় ঘুরতে ছিল যুক্তরাষ্ট্র,যুক্তরাজ্যের কথা কেন জানি বলতে পারি নাই।বলছিলাম সরি স্যার এই মুহূর্তে মনে করতে পারছি না
পাশে একজন স্যার ছিলেন তিনি টএকটু হিন্স দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন।
স্যার-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কি??
আমি-কেন জানি মনে হচ্ছিল না, কিছু ক্ষণ পর মনে হল বলাম হ্যাঁ,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট।
ডিসি স্যার-কি নাম?
আমি-সরি বললাম।
এবার ডিসি স্যার একটা ধর্ম খুলে দুইটা আরবি জিজ্ঞাসা করছিলেন।
একটা পারি নাই।
আরেকটা ছিল-রব্বির হাম হুমা কামা রব্বানি সগিরার অর্থ কি??
আমি-হে আল্লাহ্ আমার বাবা মা আমাকে ছোট বেলা থেকে যেভাবে আদর যত্নে লালন পালন করেছেন আপনি তাদের কে ঠিক তেমন ভাবে ভালো রাখবেন।
ডিসি স্যার-কে বলেছেন এটা???
আমি-ভুল উত্তর দিয়ে ছিলাম।
এবার ডিপিইও স্যার প্রশ্ন করলেন
ডিপিইও স্যার-What is the best quality of an ideal teacher?
আমি-I think the best quality of a teacher have to be patient.
ডিসি স্যার-patient থাকলেই হবে??আর কিছু থাকতে হবে না???
আমি-yes sir,He or she have to be good qualified.He needs enough knowledge what he Will study to students.
তখন নার্ভাস নেস কাজ করছি😰
ডিপিইও স্যার-অংক পারেন???বাচ্চাদের কে তো অংক ইংলিশ এসবই করাতে হবে।
আমি-আমি মনে মনে খুশিহয়ে গেলাম ,কারন অংকে আমি ভালো।তাই বললাম..জি স্যার পারবো।
স্যার-উত্পাদক পারেন???
আমি-পারি স্যার।
স্যার-আপনার কি সাবজেক্ট ম্যাথ???
আমি-না স্যার
স্যার-তাহলে পারবেন কি করে পারবেন নাহ্।
আমি-স্যার আমি পারবো।
স্যার-তাহলে লিখেন-3x-x-14
আমি-করে দেওয়ার পর স্যার খুব খুশি হয়েছেন..বললেন very good
ডিপিইও স্যার বললেন উনাকে কি আর প্রশ্ন করবেন???সবাই বললেন না,উনাকে অনেক ক্ষণ রাখা হয়েছে এবার ছেড়ে দেন।
আসার সময় ডিসি স্যার বললেন অংক কি পারছে???
ডিপিইও স্যার জি স্যার,খুব ভালো ভাবে…স্মুথলি পারছে।ডিপিইও স্যার খুব খুশি হয়েছেন।
সালাম দিয়ে চলে আসলাম।
আল্লাহ্ ভরসা ।রিজিকের মালিক আল্লাহ্।আমার জন্য দোয়া করবেন।যদি কারো একটু উপকারে আসে,তাই শেয়ার করলাম।

ভাইভা অভিজ্ঞতা-২০১৯ইং
বিষয় : সমাজবিজ্ঞান
বোর্ড: এডিসি,ডিপিইও,পিটিআই সুপার সহ আরো দুই/তিন এক্সটার্নাল ছিলেন।
(অসুস্থ থাকায় আমার উপজেলার সবার আগে আমার ভাইভা নিয়েছিলেন)
আমি : আসতে পারি,স্যার!
ডিপিইও: জ্বি,আসুন। এখানে বসুন। দেখি কাগজপত্রগুলো দিন। দেখতে দেখতে জিজ্ঞেস করলেন ‘ কি হয়েছে,আপনার!?’
আমি : স্যার,পা ফুলে গেছে,হাটতে কষ্ট হচ্ছে।
এর মধ্যে একজন মেডাম আমার নাম খুঁজে একটা লিস্টে সাইন করতে দিলেন।।
শুধু একজন মেডাম প্রশ্ন করেছিলেন।বাকিরা নিজেদের মধ্যে কথা বলতে বলতে আমার আর মেডামের কথোপকথন শুনছিলেন
মেডাম : আচ্ছা বলুন,আপনার সর্বশেষ পড়াশোনা কী!?
আমি: ম্যাম,মাস্টার্স সম্পন্ন করেছি।
মেডাম : কোন বিষয়ে?
আমি : সমাজবিজ্ঞান বিভাগ থেকে,ম্যাম।
মেডাম : আচ্ছা,বলুন,সাম্যবাদের জনক কে!?
আমি : স্যরি ম্যাম,এ মুহূর্তে মনে পরছে না।( অসুস্থতায় নার্ভাস ছিলাম,জানা উত্তরে স্যরি বলে দিছি)
মেডাম: তাহলে বলুন,সাম্যবাদ কী?
আমি : সমতাভিত্তিক সমাজব্যবস্থা-ই হলো সাম্যবাদ।
মেডাম: সামাজিকীকরন কী?
আমি : জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত মানুষের সমাজস্থ হওয়ার প্রক্রিয়ায় সামাজিকীকরন। ( সংক্ষেপে বুঝানোর চেষ্টা করেছি)
মেডাম : কয়েকজন সমাজবিজ্ঞানীর নাম বলুন।
আমি: অগাস্ট কোৎ,ম্যাক্স ওয়েভার,ইবনে খালদুন,এরিস্টটল বলার পর থামিয়ে দিলেন,,,
মেডাম: ইক্যুইলিটি আর ইক্যুইভেলেন্সের মধ্যে পার্থক্য বলেন।
আমি: ইক্যুইলিটি হলো সমান অধিকারের দৃষ্টিভঙ্গি অন্যদিকে ইক্যুইভেলেন্স হলো বয়স,লিঙ্গ,সক্ষমতা অনুসারে সমতা নিশ্চিত করা।
স্যরি ম্যাম,আর মনে পরছে না এ মুহূর্তে( গুছাতে পারছিলাম না পার্থক্যগুলো).
মেডাম : ঠিক আছে। বলুন, যুদ্ধকালীন চট্টগ্রামের কমান্ডার কে ছিলেন!?
আমি : স্যরি ম্যাম! ( সে মুহূর্তে চট্টগ্রাম ১নং আর ২ং সেক্টরে কনফিউজড হয়ে গেছিলাম,তাই সরাসরি স্যরি বলে দিয়েছিলাম।)
মেডাম : বাংলাদেশের সর্বউত্তরের জেলার নাম কী!?
আমি : পঞ্চগড়, ম্যাম। (খুব স্পীডলি আনসার করছি,উত্তরটা ঠোঁটের আগায় ছিলো!)
মেডাম : ঠিক আছে। আপনি আসতে পারেন।।
আমি দাঁড়াতে দাঁড়াতে মেডাম আমার এসএসসি পাশের সন জানতে চায়লেন ডিপিইও স্যারের কাছে।
ডিপিইও : উনি ২০০৯ সালে পাস করেছেন।
মেডাম : ঠিক আছে আপনি আসুন।
নমস্কার জানিয়ে চলে আসলা।
ভাইভা অভিজ্ঞতার পর আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম।মনে করছি হবে না।
২৪ ডিসেম্বর,২০১৯
রাত সাড়ে ১০টার দিকে দেখি মেসেজ “Congratulation! You(4507—) are finally selected for the post of Asst. Teacher of Govt. Primary School.Please contact to dpeo for the next course of action.”
সম্পূর্ণ অপ্রত্যাশিত প্রাপ্তি বলতে পারেন।
পলাশ গুহ
সহকারী শিক্ষক
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়
ফটিকছড়ি,চট্টগ্রাম।

নিজের সুবিধামত পড়ার জন্য টাইমলাইনে শেয়ার করে রাখুন

Leave a Comment

Your email address will not be published.

four + ten =